অট্টাল

গতকাল রাত্রে নেটফ্লিক্সে মালায়ালাম ভাষার সিনেমা দেখলাম অট্টাল। কি সুন্দর গল্প এবং পরিচালনা। গল্পটি রাশিয়ান লেখক অ্যান্টন চেখভের বাঙ্কা থেকে তোলা, কিন্তু খুব উপযুক্তভাবে কেরলের অসাধারণ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের মধ্যে গেঁথেছেন পরিচালক। বড় গল্পের সাথে সাথে অনেক ছোটখাট বিষয়ও দেখিয়েছে গল্পে, যেমন বিনা সচেতন প্রচেষ্টাতেই কিভাবে সাধারণ পরিবারেরাও নিচের আর্থিক স্তরের মানুষের রক্ত চোষে, তাদের বিনিময় মায়ার জগতে জয়ী হয়, এইসব। শেষে দাদু যখন অনাথ নাতিকে বাজির কারখানায় পাঠিয়ে দেন, তখন আমি চোখের জল ধরে রাখতে পারিনি। কোনদিন সিনেমা দেখে এরকম অন্তরে টান দেয়নি যেমন এই সিনেমা দেখে লাগল। কুট্টপ্পয়িএর সাথে কেমন জানি আমার অন্তরের মিল লাগল। আমি সুখী যে আমি দাদুদিদাদের সাথে বড় হতে পেরেছি, তাদের থেকে অঙ্ক থেকে ইতিহাস শিখেছি। তাদের থেকে আমাকেও জীবন এক কাল ছিঁড়ে নিয়েছিল। তাদের সঙ্গের সাথে সাথে আমার জন্মস্থানও ছিঁড়ে গেছিল আমার জীবন থেকে। অন্তরের সে ধাক্কা থেকে কি আমার উদ্ধার কোনদিন হবে? যত সময় যায়, এ ধাক্কার প্রভাব যে কমে না, কেবল বাড়তেই থাকে।